পিজ্জা বানানোর রেসিপি

যারা আমার পিজ্জা বানানোর রেসিপি চেয়েছিলেন তাদের জন্য।মাফ করবেন দেরি হয়েছে আগেই দিতে চেয়েছিলাম কিন্তু পারিনি।😥
ডো বানানোর উপকরণঃময়দা,ডিম ১টা,গুড়া দুধ ৩ চা চামচ(আমি যেটুকু ময়দা নিয়ে ছিলাম সেই অনুযায়ী,ময়দার পরিমাণ এক কাপ এর মত)ইস্ট, সামান্য লবণ, সামান্য চিনি,হাল্কা গরম পানি পরিমাণ মত,তেল সামান্য।
প্রথমে একটা পাত্রে গরম পানিতে লবণ, ইস্ট, দিয়ে পাচ মিনিট রেখে ইস্ট কে এক্টিভেট করে নিতে হবে।অন্যপাত্রে ময়দা,তেল,গুড়াদুধ আর ডিম দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে তারমধ্যে ইস্ট এর পানি অল্প অল্প করেদিয়ে ভালো মতো মথে ডো বানিয়ে নিতে হবে। মনে রাখতে হবে ডো যেনো খুব শক্ত না হয়। এরপরে এই ডো টার পাত্রকে একটা পলি দিয়ে মুড়িয়ে কোনো গরম জায়গায় রাখতে হবে (আমি চুলা জালিয়ে তারপাশে রেখেছিলাম 4ঘন্টার মত)
এরপর মুরগির বুকের মাংস কিউব করে কেটে এর মাঝে লবন,মরিচেরগুড়া,সামান্য লেবুর রস,আদা রসুন জিরা বাটা,সয়াসস দিয়ে বেশকিছু সময় মেরিনেট করে রেখে সামান্য তেলে ভেজে নিতে হবে।
পিজ্জা সস এর রেসিপিঃপ্যানে সামান্য তেল দিয়ে এর মাঝে রসুন আর পেয়াজ কুচি দিয়ে কিছু সময় নেরে এতের কিউব করে কাটা টমেটো দিয়ে এর সাথে লবণ, অরগানো(সুপার শপে কিনতে পাবেন),কাঠখোলায় ভাজা শুকনা মরিচ টালা দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ভালো মত নেরেচেরে টমেটো না গলা অব্দি রান্না করে করতে হবে। টমেটো গলে গেলে নামিয়ে নিতে হবে।
(আমি নিজের পছন্দ মতো সব্জি দিয়েছি ছিলো গাজর,ক্যাপসিকাম, টমেটো,সয়া,কাজুবাদাম কুচি করে দিয়েছিলাম আজব মনে হলেও ভালো লেগেছে, কাচামরিচ কুচি, পেয়াজ, চিজ,)
ডো যখন ফুলে দ্বিগুণ হবে তখন বুঝবেন আপনার ডো পারফেক্ট হয়েছে। এরপর ডো টাকে আবার ভালোকরে মেখে এর ভেতর থেকে বাতাস বের করে সেটা একটা রুটির আকার দিতে হবে (সাইজ আর রুটি কত টুকু পুরু করবেন সেটা আপনার উপর)। সেই রুটিকে ফ্রাইপ্যানে দিয়ে কাটা চামচ দিয়ে সারা রুটিকে খুচিয়ে নিয়ে এর উপর পিজ্জাসস ভালো মতো মেখে তার উপর গ্রেট করা চিজ দিয়ে একে একে ভাজা মাংস, সব্জি দিয়ে তার উপর সামান্য অরগানো ছিটিয়ে সবশেষে আবার চিজ দিয়ে দিতে হবে (চিজ আপনি কতটুকু দিবেন আপনার পছন্দের উপর নির্ভর করে) এরপর চুলার জাল সামান্য মিডিয়ামে রেখে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ১০/১৫মিনিট রাখতে হবে (অনুমান করে আমি সবসময় নামিয়ে নেই)খেয়াল রাখতে হবে রুটির নিচে যেন পুড়ে না যায়। হয়ে গেলে গরম গরম পরিবেশন করুন😊(গুছিয়ে লিখতে না পারার জন্য সরি আসলে অনেক সময় লাগে লিখতে ভুলগুলি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আমি প্রফেশনাল রান্না শিখিনি তাই ভুল হতে পারে)

পিজ্জা বানানোর রেসিপি