Scholarship – শিক্ষা বৃত্তির তথ্য

স্কলারশিপ অনেকের কাছে একটি স্বপ্নের নাম। সাধারণত প্রতিটি ভালো শিক্ষার্থীর একটি স্বপ্ন থাকে স্কলারশিপ নিয়ে পড়াশোনা করার। তাই বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা ভালো শিক্ষার্থীদের জন্য স্কলারশিপ সুবিধা দিয়ে থাকে৷ স্কুল থেকে শুরু করে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্যেও রয়েছে নানারকম স্কলারশিপের ব্যবস্থা। কিন্তু বেশিরভাগ শিক্ষার্থী মাধ্যমিক বা তার পর থেকে স্কলারশিপ নিয়ে থাকে।

Scholarship এর তথ্য

দেশি বিদেশী বিভিন্ন শিক্ষা বৃত্তির বিস্তারিত তথ্য জানতে নিচের বিজ্ঞপ্তিগুলো দেখুন।আপনার কাঙ্কিত বিজ্ঞপ্তিটি পেয়ে থাকলে নিয়ম মোতাবেক আবেদন করে ফেলুন।

anso scholarship

চীনের বিখ্যাত আনসো স্কলারশিপে আবেদনগ্রহণ শুরু হয়েছে। এটি মাস্টার্স ও পিএইচডি কোর্সে পড়াশোনার জন্য চীনের একটি ফুল ফ্রি স্কলারশিপ। সঙ্গে দেওয়া হবে বিমানভাড়াও। ‘অপরচুনিটি কর্নার্স’ এই খবর প্রকাশ করেছে।

তাদের প্রতিবেদন বলছে, এই স্কলারশিপটির আওতায় চীনে ২০০ শিক্ষার্থীকে মাস্টার্স ও ৩০০ শিক্ষার্থীকে পিএইচডি করার সুযোগ দেওয়া হবে। চীনের শীর্ষ দুই বিশ্ববিদ্যালয়ে এই স্কলারশিপ নিয়ে পড়া যাবে। বিশ্ববিদ্যালয় দুইটি হলো ইউনিভার্সিটি অফ সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি চীন ও ইউনিভার্সিটি অফ চাইনিজ একাডেমি অফ সায়েন্স বা ইন্সটিটিউট অফ চাইনিজ একাডেমি অফ সায়েন্সেস।

পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তের শিক্ষার্থীরা এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবে। এবছর চীন সরকার ২০ হাজার শিক্ষার্থীকে স্কলারশিপ দেওয়ার জন্য আবেদন আহ্বান করেছে। চীনে বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য উঁচু মানের স্কলারশিপগুলোর মধ্যে অন্যতম এই আনসো স্কলারশিপ। সকল একাডেমিক ক্ষেত্রে বেশিরভাগ মুখ্য বিষয়ে এই স্কলারশিপের আওতায় পড়াশোনা করা যাবে।

স্কলারশিপটির অধীনে একজন মাস্টার্সের শিক্ষার্থীকে ৩ হাজার চাইনিজ ইয়ান বা ৩৮ হাজার টাকা দেওয়া হবে। অন্যদিকে পিএইচডির ক্ষেত্রে একজন শিক্ষার্থী পাবেন ৭ হাজার ইয়ান বা ৯০ হাজার টাকা।

স্কলারশীপটিতে আবেদনের শেষ সময়সীমা ৩১ মার্চ ২০২১। মূলত মেধাবী ও পরিশ্রমীরা এই স্কলারশিপে সুযোগ পেয়ে থাকে। স্কলারশিপটি পেতে শিক্ষার্থীকে অবশ্যই চীন ছাড়া অন্য দেশের নাগরিক হতে হবে। শারিরীক ও মানসিকভাবে সুস্থ হতে হবে। নেতৃত্ব, ব্যবস্থাপনা ও স্বেচ্ছাসেবী কাজ করার দক্ষতা থাকতে হবে। গবেষণার ভাল দক্ষতা ও আগ্রহ থাকতে হবে। চীনা কিংবা ইংরেজি ভাষা জানতে হবে বেশ ভাল করে।

স্কলারশিপটির আবেদন করতে হবে পুরো অনলাইনে। নিচের লিংকে ঢুকে স্কলারশিপটিতে আবেদনের পাশাপাশি অন্যান্য তথ্যও জানা যাবে।

shorturl.at/aqDGJ

বর্তমানে চীন উচ্চশিক্ষা বিতরণে আমেরিকা টেক্কা দেওয়ার চেষ্টা করছে। চীনে মাস্টার্স প্রোগ্রাম সাধারণত ৩৬ মাস স্থায়ী হয় এবং পিএইচডি প্রোগ্রাম ৪৮ মাস স্থায়ী হয়ে থাকে। দেশটির অনেক বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বমঞ্চে যোগ্যতার বিচারে উপরের দিকে আছে। চীনে প্রতিবছর প্রায় ৫০০ টি স্কলারশিপ দেওয়া হয়ে থাকে।

university of sussex scholarship

যুক্তরাজ্যের ‘ইউনিভার্সিটি অব সাসেক্স’ বাংলাদেশিদের জন্য বিশেষ স্কলারশিপের ঘোষণা দিয়েছে। এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘সাসেক্স বাংলাদেশ স্কলারশিপ’।

এ স্কলারশিপ পেলে কোনো বাংলাদেশি শিক্ষার্থী এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বিনা টিউশন ফিতে পড়তে পারবেন।

সাসেক্সে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক সাফল্যের ফলে বাংলাদেশিদের জন্য বিশেষভাবে এ স্কলারশিপ চালু হয়েছে।

ইউনিভার্সিটি অব সাসেক্সের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, ‌‘স্কলারশিপের বিজ্ঞাপনে মেধার যোগ্যতায় পড়ার সুযোগ পাওয়া বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা পাবেন তিন হাজার ব্রিটিশ পাউন্ড। বাংলাদেশিরা স্কলারশিপের আওতায় থাকা বিয়ষগুলোতে পড়তে পারবেন।’

এ জন্য আবেদন করা যাবে ২০২১ সালের বছরের ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। স্কলারশিপ কতজনকে দেওয়া হবে, তা নির্ধারণ করবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আবেদনে যেসব শর্ত পূরণ করতে হবে

এ স্কলারশিপ পেতে শিক্ষার্থীদের কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। প্রথম শর্ত, অবশ্যই বাংলাদেশি নাগরিক হতে হবে। বিনা বেতনে অধ্যয়নের জন্য যোগ্যতা প্রমাণ দিতে হবে। ব্রিটেনে জীবনযাত্রার খরচ মেটানোর সামর্থ্য তার থাকতে হবে। সাসেক্সের ২০২১–এর স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে সুযোগ পেতে হবে।

Scholarship – শিক্ষা বৃত্তির তথ্য
Scholarship