ফাইবার থেকে কিভাবে আয় করবেন

ফাইবার হলো একটি ফ্রিলানসিং মার্কেটপ্লেস যেখানে আপনি সকল ফ্রিলানসিং সার্ভিস পেয়ে থাকবেন। থেকে বায়াররা প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সারদের খুজে বের করতে পারেন। এখানে আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হোন তাহলে আপনার সার্ভিসগুলোকে সাজিয়ে রাখতে পারেন গিগ আকারে যেখান থেকে বায়াররা পছন্দমতো বেছে নিতে পারে আপনাকে। এটি এমন একটি মার্কেটপ্লেস যেখানে সকল রকমের ফ্রিলানসিং সার্ভিস কেনা বেচা হয়ে থাকে।

ফাইবার থেকে কিভাবে আয় করবেন

How to earn from fiverr
ফাইবার থেকে কিভাবে আয় করবেন

Fiverr কিভাবে কাজ করে ?

আমি আগেই বলেছি, fiverr হলো এমন একটি online portal যেখানে বিভিন্ন digital service গুলো কেনা বেচা করা হয়।

তাই যখন প্রশ্ন আসছে যে, fiverr কিভাবে কাজ করে তখন এর উত্তর কিছু শব্দের মধ্যে দিয়ে বলা ও বোঝানো যেতে পারে।

  1. সবচে প্রথমে, বিভিন্ন freelancers রা বিভিন্ন কাজ করার উদেশ্যে নিজেকে fiverr এ রেজিস্টার করেন।
  2. এবার, ফ্রিল্যান্সাররা কোন কাজ গুলো অন্যান্য লোকেদের জন্য করে দিতে পারবেন, সেই বিষয়ে fiverr marketplace এ fiverr Gig এর মাধ্যমে প্রচার করেন।
  3. Freelancer রা যেই কাজ গুলো fiverr এ পাবলিশ (publish) করেন, সেগুলোকে বলা হয় ফাইভার গিগ (Fiverr Gig).
  4. এবং, যেই ফ্রিল্যান্সার রা ফাইভারে কাজ বিক্রি করেন, তাদেরকে বলা হয় “Fiverr seller“.
  5. এখন, যেকোনো company বা person নিজের প্রয়োজন অনুসরী কিছু কাজ করানোর উদ্দেশ্যে ফাইভার এ আসেন এবং নিজের কাজ এর সাথে জড়িত fiverr Gig (service) গুলো খুজেঁন।
  6. এবার, নিজের কাজ করানোর জন্য পছন্দের freelancer বা Fiver Gig খুঁজে পাওয়ার পর, সেই কাজের সাথে জড়িত তথ্য গুলো দেখে নিতে হয়।

How to earn from fiverr

ফাইভার থেকে টাকা আয় করার প্রক্রিয়া

  1. আপনি কোন কাজটি অনেক ভালো করে করতে পারবেন সেটা নিয়ে ভাবুন। উদাহরণ স্বরূপে, ডিজিটাল মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ভিডিও এডিটিং, লোগো ডিজাইন ইত্যাদি।
  2. এবার, নিজের একটি fiverr seller account তৈরি করুন।
  3. একাউন্ট তৈরি করার পর, নিজের profile settings এ গিয়ে নিজের profile picture, নিজের কাজের বিষয় ইত্যাদি সেট করুন।
  4. এবার আপনার নিজের একটি Fiverr gig তৈরি করতে হবে। Gig হলো সেই কাজটি যেটা আপনি বিক্রি করে Fiverr থেকে আয় করতে চাচ্ছেন।
  5. আপনি কি কাজ করতে পারবেন, কাজটি করার বিনিময়ে কত টাকা নিবেন এবং কত সময়ের ভেতরে কাজটি করতে পারবেন, সবটাই fiverr gig তৈরি করার সময় দিয়ে দিতে হবে।
  6. এবার যখন কোনো ব্যক্তি, কোম্পানি বা ক্লায়েন্ট আপনাকে ফাইভারে পাবলিশ করা আপনার গিগ (Gig) এর অনুযায়ী কাজ দিবে, তখন সেগুলো ধরে দেওয়া সময় হিসেবে আপনার করতে হবে।
  7. এবং, সফলতাপূর্বক ভাবে নিজের কাজ সময় মতো করে, নিজের ক্লায়েন্ট দের জমা দিতে পারলে, সেই কাজের বিনিময়ে আপনি ফাইভার থেকে টাকা পেয়ে যাবেন।
  8. মনে রাখবেন, প্রত্যেকটি কাজ ক্লায়েন্ট এর দ্বারা অর্ডার (order) করার সাথে সাথেই, fiverr দ্বারা সেই কাজের দাম client থেকে নিয়ে নেওয়া হয়।
  9. তাই, আপনি কাজটি সঠিক ভাবে করার পর, টাকা পাওয়ার নিশ্চয়তা থেকে যায়।

তাহলে বন্ধুরা, এভাবেই একটি fiver account খুলে নিজের জানা কাজ গুলো অন্যের জন্য করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

Fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায় ?

ফাইভার এর মাধ্যমে কি কি কাজ পাওয়া যাবে, এই প্রশ্নের উত্তর সোজা ভাবে দেওয়া যাবেনা।

কারণ, এখানে বিভিন্ন লোকেরা হাজার হাজার রকমের কাজ করানোর উদ্দেশ্যে আসে এবং freelancer বা seller দের খুজেঁ।

তাই, কেও হয়তো সাধারণ একটি লোগো তৈরির কাজ করানোর ক্ষেত্রে ফাইভারে আসতে পারে আবার কেই হয়তো একটি android app development এর মতো advanced কাজ করানোর উদ্দেশ্যে ফাইভার মার্কেটপ্লেস এ আসতে পারে।

তাই আপনার যেই বিষয়ে অভিজ্ঞতা ও জ্ঞান রোয়েসে এবং যেই কাজ আপনি কোনো অসুবিধে ছাড়া নির্ভুল ভাবে করতে পারবেন সেই সব কাজ গুলো এখানে পাবলিশ করে কাজ পাওয়ার অপেক্ষা করতে পারবেন।

তাছাড়া, fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যাবে, এই প্রশ্নের উত্তর যদি সরাসরি ভাবে জেনে নিতে চান, তাহলে আমি বলবো –

  • Web designing এর কাজ
  • Logo designing এর কাজ
  • Android app developer
  • আর্টিকেল লেখা ও তৈরি করার কাজ
  • ভিডিও এডিটিং এর কাজ
  • ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ
  • SEO optimization এর কাজ
  • WordPress website optimization
  • Online shopping website তৈরির কাজ
  • Graphic designing
  • WordPress speed optimization

এবং আরো অনেক ধরণের কাজ আপনারা fiverr এর মাধ্যমে ঘরে বসেই পাবেন।

একবার Fiverr website এ গিয়ে, আপনারা সম্পূর্ণ কাজ গুলোর বিষয়টি জেনেনিতে পারবেন।

কিভাবে ফাইভার  একাউন্ট খুলবেন ?

ফাইভারের মাধ্যমে কাজ করার জন্য, একটি Fiverr seller account তৈরি করার প্রক্রিয়া অনেক সহজ।

  1. সবচে প্রথমেই, fiverr homepage থেকে “become a seller” এ ক্লিক করতে হবে।
  2. এবার আবার “Become a seller” লিংক দেখবেন যেখানে click করতে হবে।
  3. এখন, account তৈরি করার জন্য যদি আপনি আপনার Facebook বা Gmail একাউন্ট ব্যবহার করতে চান, তাহলে Facebook বা Gmail এর icon এ ক্লিক করুন।
  4. যদি আপনি email এর মাধ্যমে একাউন্ট তৈরি করতে চাচ্ছেন, তাহলে নিজের email ID দিয়ে “Continue” তে ক্লিক করুন।
  5. এবার email id দেওয়ার পর পরের পেজে আপনার দিতে হবে একটি নতুন “username” এবং তারপর “password“.
  6. এবার নিচে থাকা “Join” লিংকে ক্লিক করুন।
  7. Join link এ ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার দেওয়া email account এ একটি activation link চলে যাবে।
  8. Fiverr এর তরফ থেকে যাওয়া সেই activation link ক্লিক করে দেওয়ার সাথে সাথে আপনার নতুন fiverr account সফলতাপূর্বক ভাবে তৈরি ও এক্টিভেট হয়ে যাবে।
  9. এখন আপনি যেই কাজ গুলো করে fiverr থেকে আয় করার কথা ভাবছেন, সেগুলি fiverr gig হিসেবে publish করতে পারবেন।

একাউন্ট করুন

ফাইবার থেকে কিভাবে টাকা উত্তোলন করবেন?

এই বার আসি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে, কাজ করলাম ইনকাম ফাইবার একাউন্টে জমা হলো কিন্তু হাতে টাকা আনবো কি করে। ফাইবার এর একাউন্টে যখন $৫০ হয়ে যাবে তখন আপনি এটি ট্রান্সফার করে আনতে পারবেন বা উইথড্র করে নিতে পারবেন। কিভাবে বা কোথায় উইথড্র করবেন তা জেনে নিন। আইডি বা একাউন্ট করার পর আপনি একটি পাইওনিয়ার একাউন্ট করে নিবেন। আপনার পাইওনিয়ার একাউন্টে আইডিকার্ড অনুযায়ী সকল তথ্য দিবেন এটি ভেরিফাই করে নিবেন এবার এটি ফাইবার এর সাথে এড করে নিবেন। আপনার একাউন্টে যখন ৫০ ডলার হবে তখন আপনি পাইওনিয়ার কার্ডে উইথড্র দিবেন ১-২ দিন পরে আপনার ফাইবার এর টাকা পাইওনিয়ার কার্ডে জমা হবে। পরে পাইওনিয়ার এর সাথে আপনার বাংলাদেশি ব্যাংক একাউন্ট এড করে নিবেন। যেকোন একটি ব্যাংক একাউন্ট হলে হবে। এর পর পাইওনিয়ার থেকে আপনার ব্যাংকে উইথড্র দিন এবার আপনার হতে টাকা চলে আসবে এইভাবে টাকা আপনি ফাইবার থেকে আপনার হাতে আসবে।

Leave a Reply

2 thoughts on “ফাইবার থেকে কিভাবে আয় করবেন”

  1. I may need your help. I’ve been doing research on gate io recently, and I’ve tried a lot of different things. Later, I read your article, and I think your way of writing has given me some innovative ideas, thank you very much.

  2. Pingback: A片

FREELANCING
EDUCATION
CONTRIBUTION
Language »
Scroll to Top